নীড় পাতা » করোনাভাইরাস আপডেট » খুলছে না রাঙামাটির পর্যটনকেন্দ্র, স্বাস্থ্যবিধি মেনে খুলছে হোটেল-মোটেল

খুলছে না রাঙামাটির পর্যটনকেন্দ্র, স্বাস্থ্যবিধি মেনে খুলছে হোটেল-মোটেল

কভিড-১৯ এর কারণে সারাদেশের মত রাঙামাটির পর্যটনকেন্দ্র ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। তবে সরকারের ঘোষিত সাধারণ ছুটি তুলে নেয়া হলেও খুলছেনা রাঙামাটির কোনো পর্যটনকেন্দ্র। তবে দুই মাসের বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকার পর রোববার থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলা হচ্ছে রাঙামাটির ৫১টি আবাসিক হোটেল-মোটেল।

সূত্রে জানা গেছে, ১৮ মার্চ রাতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে রাঙামাটির পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন। তার পরদিন থেকেই রাঙামাটির সকল আবাসিক হোটেল-মোটেল ও বন্ধ করে দেয়া হয়। রাঙামাটিতে অবস্থান করা পর্যটকরাও রাঙামাটি ছাড়েন।

তবে আজ শনিবার সকাল থেকে রাঙামাটি শহরের আবাসিক হোটেলগুলো পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার কাজ শুরু হয়েছে। শহরের প্রায় হোটেলে এই চিত্র দেখা গিয়েছে। তবে পর্যটন করপোরেশনের মোটেলটি এখনো খোলার সিদ্ধান্ত না হলেও, গণপরিবহণ চালু হলে বুকিং পেলে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা করে সুরক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করে সেটিও খোলার ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছে রাঙামাটি পর্যটন করপোরেশন।

রাঙামাটি আবাসিক হোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মঈনুদ্দিন সেলিম জানিয়েছেন, আমাদের সংগঠনের আওতায় থাকা ৫১টি আবাসিক হোটেল রোববার সকাল থেকে খোলা হবে। তবে আগের মতো স্বাভাবিক ভাবে খোলা হবে না। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে খোলা হবে। স্বাভাবিকের মত হোটেল কর্মচারিদেরও কাজে নিয়োগ দেয়া হবে না। প্রাথমিক অবস্থায় স্বল্পসংখ্যক কর্মচারি কাজে যোগদান করবে। আমরা সিঙ্গেল রুমে একজনের বেশি রাখব না। বিশেষ করে প্রাধান্ন দেয়া হবে ডাবল রুমগুলোকে।

রাঙামাটি পর্যটন করপোরেশনের ব্যবস্থাপক সৃজন বিকাশ বড়ুয়া জানিয়েছেন, আমাদের এখন কোনো বুকিং নেই। আর গণপরিবহন চালু হলে আমাদের কাছে বুকিং আসলে সেটা জেলা প্রশাসনের সাথে কথা বলে ব্যবস্থা গ্রহণ করব। তারপরও সব স্টার্ফদের কর্মস্থলে এনে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে সব ধরণের সুরক্ষার ব্যবস্থা করে সব ইউনিট চালু করতে আরও দুই একদিন সময় প্রয়োজন।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) উত্তম কুমার দাশ জানিয়েছেন, এখনো জারি রয়েছে পর্যটন স্পটের ওপর নিষেধাঞ্জা। কোনো পর্যটন স্পট খোলা হবে না। তবে হোটেল খোলা হবে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

পাহাড়ে প্রান্তিক কৃষকদের স্বাবলম্বী করে তুলছে ‘মিশ্র ফল বাগান প্রকল্প’

পাহাড়ের প্রান্তিক কৃষকদের অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করে তুলছে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ‘মিশ্র ফল বাগান প্রকল্প’। …

Leave a Reply