নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদে পরিবর্তনের আভাস

খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদে পরিবর্তনের আভাস

KHDC-Picজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের পদ থেকে অব্যাহতি নিয়ে সংসদ সংসদ নির্বাচিত হয়েছেন। ফলে পরিষদের সদস্যরা নিজেরাই ভোট করে অস্থায়ী চেয়ারম্যান বানিয়েছিলেন আরেক সদস্য চাইথোঅং মারমাকে। মারমা সম্প্রদায়ের এই প্রবীনতম ব্যক্তিকেই চেয়ারম্যান হিসেবে স্থায়ীভাবে চান ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মী এবং মারমা আদিবাসীরা। তবে এই পদে মুক্তিযোদ্ধা ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতা রনবিক্রম ত্রিপুরার নামও শোনা যাচ্ছে।
আর খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য পদে পরিবর্তনের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। গুঞ্জন উঠেছে, পরিষদের কাঠামোগত পরিবর্তন ঘটিয়ে সদস্য সংখ্যাও বাড়াতে পারে সরকার। অথবা বর্তমান কাঠামোতেই পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্যদের মধ্যে পরিবর্তন করা হতে পারে।
সেক্ষেত্রে জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে জেলা আওয়ামীলীগের সেক্রেটারী জাহেদুল আলম, যুগ্ম সম্পাদক এসএম শফি, দীঘিনালা আওয়ামীলীগের সভাপতি মো: কাশেম, আওয়ামীলীগ নেতা নির্মলেন্দু চৌধুরী, আওয়ামীলীগ নেতা মংক্যচিং চৌধুরী, এডভোকেট আশুতোষ চাকমা, বীর মুক্তিযোদ্ধা রণ বিক্রম ত্রিপুরা, খোকনেশ্বর ত্রিপুরা, খাগেশ্বর ত্রিপুরাসহ কয়েকজনের নাম শোনা যাচ্ছে।

বর্তমানে পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান চাইথোঅং মারমা, সদস্য বীর কিশোর চাকমা অটল ও মো: সাহাবুদ্দিন। উল্লেখ্য যে, কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা সদস্য হিসেবে নিযুক্ত হয়ে অস্থায়ী চেয়ারম্যান হিসেবেই আওয়ামীলীগের শাসনামল কাটিয়েছেন। সংসদ সদস্য নির্বাচনে অংশ নিতে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরার পদত্যাগের কারনে এখন খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদে ত্রিপুরা সদস্য কেউই নেই।

ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা আশা করছেন, বর্তমানে চেয়ারম্যানসহ ৫ সদস্যের পার্বত্য জেলা পরিষদ কাঠামোতে পরিবর্তন করে ১১ সদস্য বিশিষ্ট পারিষদবর্গ গঠন করতে পারে সরকার। এতে দলের অধিক নেতাদের সম্পৃক্ত করা সম্ভব হতে পারে।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৯ সালে এরশাদ সরকারের আমলে ৫ বছর মেয়াদী পার্বত্য জেলা পরিষদগুলোর নির্বাচন হবার পর আর এসব স্বশাসিত স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোর নির্বাচন হয়নি। তখন ভোটের মাধ্যমে একজন চেয়ারম্যানসহ ৩১ সদস্য বিশিষ্ট তিন পার্বত্য জেলায় পৃথক ৩টি স্থানীয় সরকার পরিষদ গঠন করা হয়। নির্ধারিত ৫ বছর পর হতে অন্তবর্তীকালীন পরিষদগুলো মুলত: রাষ্ট্রপতির অর্নিনেন্স জারি করে ফ্যাক্স বার্তার মাধ্যমে পুনর্গঠিত হয়ে আসছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জনপ্রিয় হচ্ছে ‘তৈলাফাং’ ঝর্ণা

করোনার প্রভাবে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল খাগড়াছড়ির পর্যটন ও বিনোদনকেন্দ্র। তবে টানা বন্ধের পর এখন খুলেছে …

Leave a Reply