নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » খাগড়াছড়ির ৬ উপজেলায় দলীয় সমর্থন পেলেন যারা

খাগড়াছড়ির ৬ উপজেলায় দলীয় সমর্থন পেলেন যারা

EC-logoআগামী ১৯ ফেব্রুয়ারী খাগড়াছড়ির ৮ উপজেলার মধ্যে ৬ উপজেলা খাগড়াছড়ি সদর, মাটিরাঙ্গা, রামগড়, মানিকছড়ি, পানছড়ি এবং মহালছড়িতে নির্বাচন হবে। জেলার দীঘিনালা ও লক্ষ্মীছড়ি উপজেলায় পরবর্তীতে নির্বাচন হবে।
শনিবার খাগড়াছড়ির ৬ উপজেলায় আওয়ামীলীগ ও বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। মানিকছড়ি উপজেলায় আওয়ামীলীগ প্রার্থীরা হলেন চেয়ারম্যান পদে  মাইগ্রো মারমা , ভাইস চেয়ারম্যান পদে তাজুল ইসলাম বাবুল এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহেনা আক্তার। বিএনপির প্রার্থীরা হলেন উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক এনাম, ভাইস চেয়ারম্যান পদে যুবদল নেতা জাকির হোসেন।
রামগড়ে আওয়ামীলীগের প্রার্থীরা হলেন জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা এ কে এম আলীম উল্লাহ, ভাইস চেয়ারম্যান পদে আব্দুল কাদের এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নাজমা বেগম। বিএনপির প্রার্থীরা হলেন উপজেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম ভূইয়াঁ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে খাদিজা আক্তার।
মাটিরাঙ্গায় আওয়ামীলীগের প্রার্থীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান শামছুল হক, ভাইস চেয়ারম্যান উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসিনা বেগম। বিএনপির প্রার্থীরা হলেন উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা বিএনপি সহ সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোয়ারা বেগম ও কোহিনুর বেগম।
মহালছড়িতে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নীলোৎপল খীসা, ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ক্যাচিং মিন চৌধুরী এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জাহানারা বেগম। বিএনপির প্রার্থীরা হলেন চেয়ারম্যান পদে দানু মিয়া সওদাগর, ভাইস চেয়ারম্যান পদে কৃষক দলের সভাপতি আব্দুল মান্নান ও আব্দুল আজিজ এবং  মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হলেন হাসিনা আক্তার।
সদর উপজেলায় বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ শানে আলম, ভাইস চেয়ারম্যান পদে পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জাবেদ হোসেন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান বাশঁরী মারমা। বিএনপির প্রার্থীরা হলেন জেলা বিএনপির সহ সভাপতি কংচারী মগ, ভাইস চেয়ারম্যান পদে তরুণ আলো দেওয়ান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আর্না চাকমা।
পানছড়িতে আওয়ামীলীগের প্রার্থীরা হলেন বকুল চন্দ্র চাকমা, ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মহিলা লীগের নেত্রী ছকিনা বেগম। বিএনপির প্রার্থীরা হলেন সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য অনিমেষ চাকমা রিংকু, ভাইস চেয়ারম্যান পদে শাহিন মৃদা ও রুমেন মারমা।

এছাড়া ইউপিডিএফ‘র প্রার্থী হিসেবে খাগড়াছড়ি সদরে চঞ্চুমনি চাকমা, পানছড়িতে বর্তমান চেয়ারম্যান সর্বোত্তম চাকমা, মহালছড়িতে বর্তমান চেয়ারম্যান সোনা রতন চাকমা মনোনয়নপত্র দিয়েছেন। অন্য তিন উপজেলার ইউপিডিএফ প্রার্থীদের নাম পাওয়া যায়নি।
এ ব্যাপারে ইউপিডিএফ‘র মুখপাত্র নিরন চাকমা জানান,‘ সাংগঠনিকভাবে এখনো প্রার্থী ঘোষনা হয়নি। জনগনের সমর্থিতরাই আমাদের প্রার্থী হতে পারেন।’
এদিকে রামগড়ে বিএনপি সমর্থক আরো ২জন প্রার্থী হয়েছেন। এরা হলেন, বিএনপি‘র জেলা সভাপতি ওয়াদুদ ভুইয়ার বড় ভাই বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন ও বিএনপি‘র সমীরন দেওয়ান গ্রুপের রিয়াজ উদ্দিন রিপন। জানা গেছে, বেলায়েত হোসেন ভুইয়া রামগড় নাগরিক পরিষদের ব্যানারে নির্বাচন করছেন। আওয়ামীলীগ সমর্থক রফিকুল ইসলাম মিন্টুও মনোনয়নপত্র জমা দেন।
জনসংহতি সমিতির (এনএন লারমা) অংশের কেন্দ্রীয় নেতা সুধাকর ত্রিপুরা জানান, ‘এবার মহালছড়িতে বিমল কান্তি চাকমা চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছেন। তবে অন্য উপজেলায় কৌশলগত অবস্থান নেয়া হবে।’
জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি মনীন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেছেন, ৬টি উপজেলাতেই প্রার্থী বাছাই করা হয়েছে। সরকার বিরোধী আন্দোলনে অবদান রাখতে পারবেন, এমন প্রার্থীকেই অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে।
জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ সমীর দত্ত চাকমা বলেন, ৬টি উপজেলায় অসাম্প্রদায়িক ব্যক্তিদেরকেই গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

ফুটবলের বিকাশে আসছে ডায়নামিক একাডেমি

পার্বত্য এলাকা রাঙামাটিতে ফুটবলকে আরও জনপ্রিয় করে তোলা, তৃনমূল পর্যায় থেকে ক্ষুদে ফুটবল খেলোয়াড় খুঁজে …

Leave a Reply