নীড় পাতা » করোনাভাইরাস আপডেট » খাগড়াছড়িতে সড়কে নামছে নিম্নআয়ের মানুষ, আক্রান্ত বাড়ছে

খাগড়াছড়িতে সড়কে নামছে নিম্নআয়ের মানুষ, আক্রান্ত বাড়ছে

খাগড়াছড়ি জেলা সদরের ইসলামপুর এলাকার বাসিন্দা ষাটোর্ধ শফিকুল ইসলাম। পেশায় ইজিবাইক (টমটম) চালক। বুধবার সকালে যাত্রী নিয়ে শহরের শাপলা চত্বর হয়ে যাওয়ার সময় পুলিশের বাঁধার মুখে পড়েন। নিষেধাজ্ঞা থাকার পর কেন ইজিবাইক চালাচ্ছেন পুলিশের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘গাড়ী না চালাইলে ঘরে খাবার নিতে পারুমনা।’ এমন উত্তর পেয়ে পুলিশ তেমন কিছু বলতে না পারলেও ফের বের না করার শর্তে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সরকারঘোষিত কঠোর লকডাউনের সপ্তম দিনে সড়কে বেড়েছে নিম্ন আয়ের মানুষের সংখ্যা। গত কয়েকদিনের তুলনায় এদিন ইজিবাইক, রিকশা চলতে দেখা গেছে। জুম চাষীরা দূর থেকে হেঁটে উৎপাদিত কৃষিপণ্য এনে বিক্রি করছেন।

সড়কের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে প্রশাসনের কঠোর নজড়দারি থাকলেও অলিগলি ছিল উপেক্ষিত। এত দিন অলিগলিতে মানুষের চলাচল থাকলেও মূল সড়ক ছিল ফাঁকা। তবে এখন অনেকটা বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে মানুষ রাস্তায় বের হচ্ছেন। এছাড়াও ব্যক্তিগত গাড়ি, পণ্যবাহী বিভিন্ন পিকআপের সংখ্যাও আগের চেয়ে বেড়েছে। কৌশলে ঢাকা ও চট্টগ্রামে বিভিন্ন যানবাহন যাত্রী পরিবহন করছে। এখনো দোকানপাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, শপিং মল বন্ধ রয়েছে। জেলার ভ্যন্তরীণ ও দূর পাল্লার সড়কের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ রশিদ জানান, সবার বাস্তবতা আমরা বুঝি। কিন্তু বিধিনিষেধ না মানলে তো পরিস্থিতি ভয়াবহ হয়ে যাবে। তাই আমরা মানুষকে বুঝিয়ে বাড়ি ফেরানোর চেষ্টা করছি।

স্বাস্থ্যবিভাগ সূত্র জানিয়েছে, গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় নতুন করে আরও ৪৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪৪.৩৩শতাংশ। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে খাগড়াছড়ি সদরে ১৭ জন, মাটিরাঙ্গায় ১৭ জন, মানিকছড়িতে ২জন, পানছড়িতে ২জ ন এবং দিঘীনালায় ৫ জন। এনিয়ে চলতি মাসে মোট ২৪৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সব মিলেয়ে শনাক্তের সংখ্যা ১হাজার ৪০৯জন। এখন পর্যন্ত জেলায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৮ জনের এবং করোনা উপসর্গ নিয়ে ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

খাগড়াছড়ির সিভিল সার্জন ডা. নুপুর কান্তি দাশ জানান, বর্তমানে হাসপাতালে মোট ৩৬ জন ভর্তি রয়েছে। এর মধ্যে আক্রান্ত ১৮ জন এবং সন্দেহজনক ১৮ জন। পুরো জেলায় ৯৫টি করোনা বেড প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্য বিভাগকে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্ট

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাঙামাটির ১২টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে স্বাস্থ্য …

Leave a Reply