নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » খাগড়াছড়িতে জেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির কর্মশালা

খাগড়াছড়িতে জেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির কর্মশালা

সরকারি বিভিন্ন বিভাগীয় প্রধানরা একমত পোষণ করে জানিয়েছেন, নারী, শিশু ও কিশোরীদের পুষ্টি উন্নয়ন এবং পুষ্টি সুশাসন ব্যতিত দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। তারা বছরব্যাপি বসতভিটায় শাক সবজি চাষাবাদ এবং গবাদি পশু পালনের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। একই সাথে সবাইকে পুষ্টিকর খাবারে উৎসাহিত করার পরামর্শ দেন। পার্বত্য চট্টগ্রাম উপযোগী নতুন পুষ্টিকর ফসলের প্রবর্তণ এবং সজিনা ও ব্রকলি চাষ বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন। সরকারি কর্মকর্তারা এক্ষেত্রে টেকনিক্যাল সাপোর্ট বৃদ্ধির অনুরোধ জানান।

বুধবার সকালে খাগড়াছড়িতে জেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির বার্ষিক কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন কর্মশালায় এসব কথাগুলো উঠে এসেছে। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সম্মেলন কক্ষে কর্মশালার আয়োজন করে ‘লিডারশীপ টু এনসিউর এডুকুয়েট নিউট্রিশন (লীন)’।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ পরিচালক মো. মর্তুজ আলীর সভাপতিত্বে কর্মশালার স্বাগত বক্তব্য রাখেন ‘লীন’র টেকনিক্যাল সমন্বয়কারি মাজহারুল ইসলাম। দ্বিতীয় জাতীয় পুষ্টি পরিকল্পনা বিষয়ে ধারণাপত্র তুলে ধরেন ‘লীন’র জেলা টেকনিক্যাল সমন্বয়কারি হেপী দেওয়ান।

দিনব্যাপী কর্মশালায় মতামত ব্যক্ত করেন জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা নুরুল আবছার, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোখলেছুর রহমান, সমাজসেবা বিভাগের উপ-পরিচালক মনিরুল ইসলাম, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো: শাহজাহান, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মুক্তা চাকমা প্রমুখ।

কর্মশালায় উপজেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটি (ইউএনএনসি)’র আওতাভূক্ত বিভাগ ও দপ্তরসমূহের কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা হয়। এছাড়াও ইউএনএনসি‘র কাজের সঙ্গে মিল রেখে আরো কিভাবে সহায়তা বৃদ্ধি করা যায় এবং নতুন ধারণার ভিত্তিতে উপজেলাওয়ারি দিক নির্দেশনার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

উল্লেখ যে, পার্বত্য চট্টগ্রামে মা ও শিশু পুষ্টি উন্নয়নে কাজ করছে ‘লীন’ প্রকল্প। ২০১৯ সাল থেকে তিন পার্বত্য জেলায় ‘লীন’ পুষ্টি সুশাসন বিষয়ক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কাপ্তাই হ্রদে ডুবে ২ কিশোরের মৃত্যু

রাঙামাটি শহর লাগোয়া কাপ্তাই হ্রদে গোসল করতে নেমে বন সংরক্ষকের পুত্রসহ দুই কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। …

Leave a Reply