নীড় পাতা » ব্রেকিং » কি আলোচনা হয়েছে সভায় ?

কি আলোচনা হয়েছে সভায় ?

sovaজানুয়ারি মাসেই পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়ন নিয়ে পরপর তিনটি গুরুত্বপূর্ণ সভা হয়েছে। প্রথমে চট্টগ্রাম,দ্বিতীয়টি ঢাকায় এবং তৃতীয়টি রাঙামাটিতে। তিনটি সভাতেই বদলেছে কুশীলব,তবে তিনটি সভাতেই উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড.গওজর রিজভী এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা সন্তু।
বুধবার রাঙামাটি অনুষ্ঠিত সর্বশেষ সভায় কি কি আলোচনা হয়েছে সেই সম্পর্কে সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জানিয়েছেন তারা দুজনই।

তবে বৈঠকে আরো কি কি আলোচনা হয়েছে সেই সম্পর্কেও জানতে আগ্রহী পাহাড়ের মানুষ। বৈঠকে উপস্থিত থাকা দায়িত্বশীল একাধিক সূত্রের সাথে কথা বলে আলোচনা সম্পর্কেও কিছুটা ধারণা পাওয়া গেছে।

বৈঠক সুত্রে জানা গেছে, সভায় সন্তু লারমা বলেন, আমরা সবাই বাংলাদেশী, এখানে যারা স্থায়ী বাসিন্দা আছি, সকলকে মিলে মিশে থাকতে হবে। ভূমি ও ভূমি ব্যবস্থাপনা অনতিবিলম্বে জেলা পরিষদে হস্তান্তর করতে হবে। জেলা প্রশাসকদের ভূমি ব্যবস্থাপনা বিষয়ে সংশোধনী এনে ঠিক করতে হবে। পুলিশ বিভাগকে সংশোধন করে মিশ্র পুলিশের ব্যবস্থা করতে হবে। ভারত প্রত্যাগত উপজাতীয় শরনার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের যে কার্যক্রম, সে কার্যক্রমের মধ্যে আভ্যন্তরীন উদ্বাস্তু যারা, তাদেরকে সঠিকভাবে পূনর্বাসন করতে হবে।

তিন পার্বত্য জেলার সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু সভায় বলেন,পার্বত্য চুক্তির মুখবন্ধ,বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব এবং পাহাড়ে বসবাসরত সকল সম্প্রদায়ের অধিকারকে সমুন্নত রেখেই কাজ করতে হবে।

চাকমা সার্কেল চীফ ব্যারিষ্টার রাজা দেবাশীষ রায় বলেন, আমি আশংকাবোধ করছি চুক্তি বাস্তবায়ন হবে, কি হবেনা। তিনি চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য রোডম্যাপ ঘোষনা করার দাবি জানান।

পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশন চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হক বলেন,আমি যদি আশংকার কথা না শুনে, আকাংখার কথা শুনতাম, তাহলে ভালো লাগতো। আমি দায়িত্ব নিয়েছি, আমাকে সকলেই সহযোগিতা করতে হবে। এরপর বাস্তবায়ন করতে আমার সুবিধা হবে। তিনি বলেন,আইন অনুযায়ী আমাকে চলতে হবে। আমার উপর বাড়তি কিছু চাপিয়ে দেয়া হলে, সেটা আমি করতে পারবোনা। যে আইনটা আছে, সে আইনটা বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।

ভূমি মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ সফিউল আলম বলেন,এখনতো আগের সেই যুগ নাই, জায়গায় গিয়ে স্কেল দিয়ে মেপে মাপজোখ করতে হবে। এখন গুগুল সার্চ করলেই পুরো ম্যাপ পাওয়া যাবে। গুগুল সার্চের মাধ্যমে একটা আধুনিক ম্যাপ তৈরী করা সম্ভব।
সভায় ভূমি কমিশন চেয়ারম্যান চেয়েছিলেন রোববার’ই ভুমি কমিশনের একটি প্রাথমিক সভা করতে, কিন্তু সভায় কেউ রাজি না হওয়াতে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের শেষের দিকে সভা করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কাপ্তাইয়ে করোনা সংক্রমণ কমছে

প্রশাসনের কঠোর নজরদারি এবং থানা পুলিশের তৎপরতায় রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে করোনা সংক্রমন হার কমছে। কাপ্তাই উপজেলা …

Leave a Reply