নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » কাপ্তাই হ্রদে বোট ডুবে দম্পতি নিখোঁজ, শহরে দেয়াল ধ্বসে নিহত ১

কাপ্তাই হ্রদে বোট ডুবে দম্পতি নিখোঁজ, শহরে দেয়াল ধ্বসে নিহত ১

SAM_0253চৈত্রের শুরুতেই রাঙামাটিতে আকস্মিক ঝড়ো বাতাসে কাপ্তাই হ্রদে ইজ্ঞিনচালিত বোট ডুবে এক দম্পত্তি নিখোঁজ হয়েছে। বুধবার বিকেল চারটার দিকে ঝড়ো বাতাসে পর্যটক হিসেবে রাঙামাটি বেড়াতে আসা ওই দম্পতি কাপ্তাই হ্রদে ভ্রমনে থাকা অবস্থায় নৌযানটি বাতাসে উল্টে গেলে বোটের আরোহীরা সবাই পানিতে ডুবে যায়। কাছেই অবস্থানকারি একটি বোট দ্রুত ঘটনাস্থলে আসলেও বোট চালক বিটু চাকমা ছাড়া আর কাউকে উদ্ধার করতে পারেনি। নিখোঁজ দম্পতির নাম আমেরিকা প্রবাসি আলমগীর পাটোয়ারি ও তার স্ত্রী আইরিন সুলতানা লিনা। তারা অল্প কিছুদিন আগেই বিয়ে করেছেন বলে জানা গেছে। তাদের গ্রামের বাড়ী কুমিল্লা জেলার বড়ুরা’র পয়ালগাছা এলাকায়।

উদ্ধারকারি বোটের চালক নুরুল ইসলাম ও মুন্না জানিয়েছেন,আমরা দুরে একটি বোট ডুবে যেতে দেখে দ্রুত বোট চালিয়ে সেখানে যাই এবং শুধুমাত্র বোটের চালক বিটন চাকমাকে উদ্ধার করতে পারি,তার কাছে জেনেছি বোটে দুইজন যাত্রী ছিলো,যারা স্বামী স্ত্রী। আশংকাজনক অবস্থায় বোট চালক বিটনকে রাঙামাটি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রাঙামাটির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ড. মুস্তাফিজুর রহমান জানিয়েছেন,নিখোঁজদের উদ্ধারে কাপ্তাই থেকে নৌবাহিনীর ডুবুরিরা এসে তল্লাশি চালাচ্ছে। তিনি নিজে এবং জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা উদ্ধারকাজ তদারক করতে দেখা গেছে।

রাঙামাটি পর্যটন ব্যবস্থাপক আখলাকুর রহমান উদ্ধার কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন, ওই দম্পতি বুধবারই রাঙামাটি এসেছে বলে জেনেছি,তাদের পাওয়া না গেলেও ভদ্রমহিলার ভ্যানিটি ব্যাগ ও মোবাইল পাওয়া গেছে,সেখান থেকে তাদের পরিচয় জেনেছে পুলিশ। ডুবে যাওয়া বোটটি উদ্ধার করা গেছে বলেও জানান তিনি।

রাঙামাটির কোতয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সোহেল ইমতিয়াজ জানিয়েছেন,নিখোঁজ দম্পতিদের একটি ভ্যানিটি ব্যাগ থেকে পাওয়া মোবাইল এর সূত্র ধরে তাদের পরিচয় নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ এবং তাদের স্বজনদের জানানো হয়েছে। তাদের উদ্ধারে নৌবাহিনীর ডুবুরিরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

এদিকে একই সময় শহরের চেম্বার অব কমার্স এলাকায় আবু তৈয়ব নামে এক ব্যক্তির একটি ভবনের নির্মানাধীন পঞ্চমতলার ছাদের একাংশ ধ্বসে পার্শ্ববর্তী একটি বাড়ীর টিনের ছালের উপর পড়লে ছাল ধ্বসে অজ্ঞাতপরিচয় এক নির্মাণ শ্রমিক ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। তার পরিচয় সম্পর্কে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর নেয়াজ আহম্মেদ ও আব্দুল মালেক, নিহত ব্যক্তি ধ্বসে পড়া বিল্ডিংয়ের পাশে ইট ভাংগার কাজ করলেও তার পরিচয় সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি বলে জানিয়েছেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বাদশার ঠাঁই হলো বৃদ্ধাশ্রমে

যাযাবর জীবন; মানসিক ভারসাম্যহীন হলেও মানুষের ভাষা বোঝে। সব সময় চুপচাপ থাকা পঞ্চাশোর্ধ মানুষটি অনেকের …

Leave a Reply