নীড় পাতা » ব্রেকিং » কাপ্তাই হ্রদে ছাড়া হলো চিতল ও শোল

কাপ্তাই হ্রদে ছাড়া হলো চিতল ও শোল

প্রচণ্ড দাবদাহ আর বৃষ্টিহীনতায় উদ্বিগ্ন রাঙামাটির মৎস্য ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা বিএফডিসি’র কর্মকর্তারা কাপ্তাই হ্রদে মাছের পরিমাণ বাড়াতে এবার ভিন্নধর্মী একটি উদ্যোগ নিয়েছেন। প্রতিবছর যেখানে কার্প জাতীয় রুই কাতাল এবং মৃগেল মাছের টনে টনে পোনা ছাড়েন তারা, এবার তার সাথে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ, বেশ বড় আকারের চিতল ও শোল মাছও ছেড়েছেন।

একসময় কাপ্তাই হ্রদে বড় বড় আকার ও ওজনের চিতল ও মহাশোল মাছ পাওয়া যেতো। এই হ্রদের চিতল ও মহাশোলের স্বাদের জন্য ছিলো ব্যাপক সুখ্যাতিও। কিন্তু কালের পরিক্রমায় কমেছে সেই মাছের আহরণের পরিমাণ। ধারণা করা হয়, ব্যাপকহারে আহরণ এবং হ্রদের প্রতিবেশগত পরিবর্তনের সাথে খাপ খাওয়াতে না পেরেই বিলীন হওয়ার পথেই হাঁটছে মাছ দুটি।

আর এই ভাবনা থেকেই হ্রদে চিতল ও শোল মাছের সুদিন ফিরিয়ে আনতে এই বছর পরীক্ষামূলকভাবে হ্রদে ছাড়া হয়েছে ১০ থেকে ১২ ইঞ্চি আকারের ৫০০ চিতল এবং ১০ ইঞ্চির বড় আকৃতির ১ হাজার শোল মাছ। মহাশোল সংগ্রহ করতে না পারায় আপাতত এই বছর শোল মাছ ছাড়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বিএফডিসি।
বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএফডিসি)’র রাঙামাটি জেলার ব্যবস্থাপক লে: কমান্ডার তৌহিদুল ইসলাম জানিয়েছেন, আমরা চেষ্টা করছি, হ্রদের মাছের এবং নির্ভরশীল জনগোষ্ঠির পুরনো সুদিন ফিরিয়ে আনতে। এবছর রুই কাতল মৃগেল এর ৪৬ টন পোনার সাথে আমরা ৫০০ চিতল এবং ১ হাজার শোল মাছও ছেড়েছি, যেগুলো পোনা নয়, পোনার চেয়ে বেশ বড়। যদি ঠিকঠাক বৃষ্টিপাত হয় এবং হ্রদে পানি বৃদ্ধি হয় যথাসময়ে, তবে আমরা আশা করছি, এই মাছগুলো প্রত্যাশা মতই বেড়ে উঠবে। এখন থেকে নিয়মিতই আমাদের এই প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।’

মি: তৌহিদ আরো জানিয়েছেন, এই বছর ২ থেকে ১৫ মে তারিখের মধ্যেই আমরা সব পোনা ছেড়ে দিয়েছি। মূলত: আমাদের অভয়াশ্রমেই ছেড়েছি শোল ও চিতল। দেখা যাক কতটুকু কি হয়। যদি সফল হই, তবে আগামী বছর মহাশোলও সংগ্রহ করে ছাড়ার পরিকল্পনা আছে।’

তিনি বলেন, একসময় এই হ্রদে প্রচুর মহাশোল ও চিতল পাওয়া যেতো। এখন চিতল ও শোল কিছু কিছু পাওয়া গেলেও মহাশোল বলতে গেলে নেই’ই হয়ে গেছে। আমরা তাই চেষ্টা করছি হ্রদের মাছের পুরনো বৈচিত্র্য ফিরিয়ে আনার।’

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জুরাছড়িতে গুলিতে নিহত কার্বারির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন

রাঙামাটির জুরাছড়ি উপজেলায় স্থানীয় এক কার্বারিকে (গ্রামপ্রধান) গুলি করে হত্যা করেছে অজ্ঞাত বন্দুকধারী সন্ত্রাসীরা। রোববার …

Leave a Reply