নীড় পাতা » ফিচার » কাজের খবর » কাট্টলী বিলে হবে পর্যটনকেন্দ্র, নির্মিত হচ্ছে ‘ওয়াচ টাওয়ার’

রাঙামাটির লংগদুর

কাট্টলী বিলে হবে পর্যটনকেন্দ্র, নির্মিত হচ্ছে ‘ওয়াচ টাওয়ার’

দীর্ঘ বছর পর হলেও অবশেষে রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় পর্যটন শিল্পের বিকাশ ঘটতে যাচ্ছে। উপজেলার ভাসাইন্যাদম ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত কাপ্তাই হ্রদের অংশবিশেষ কাট্টলি বিলে পর্যটকদের জন্য একটি ‘ওয়াচ টাওয়ার’ নির্মাণের সাইট চূড়ান্ত ও কাজ শুরুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। লংগদু উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে ও পরিষদের অর্থায়নে এই টাওয়ার নির্মাণ করা হবে।

গত বুধবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মাইনুল আবেদীন ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণের স্থান পরিদর্শন করেন। এসময় লংগদু উপজেলা প্রকৌশলী ড. প্রকৌশলী মো. জিয়াউল ইসলাম মজুমদার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, বাবুল দাশ বাবু উপস্থিত ছিলেন।

ইউএনও মাইনুল আবেদীন জানান, চারপাশে পাহাড় বেষ্টিত কাপ্তাই হ্রদের অংশ এই কাট্টলী বিল অত্যন্ত চমৎকার একটি পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার দাবিদার। রাঙামাটি জেলা শহরের সন্নিকটে অবস্থিত সুবলং থেকে নৌপথে ২৫-৩০ মিনিটের দূরত্বে অবস্থিত এই কাট্টলি বিল অত্যন্ত নয়নাভিরাম এবং সুন্দর প্রাকৃতিক পরিবেশ সম্বলিত স্থান। কাট্টলী বাজারের খুবই সন্নিকটে অবস্থিত মাইজ্জার টিলা নামক স্থান এই টাওয়ার নির্মিত হলে দর্শনার্থীগণ টাওয়ার এর চূড়ায় উঠে অত্যন্ত মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশ উপভোগ করতে পারবেন।

তিনি বলেন, এক পাশে বিজিবি ক্যাম্প, অন্যপাশে কাট্টলীর বাজারে পুলিশ ফাঁড়ি থাকায় জায়গাটা পর্যটকদের জন্য নিরাপদ হবে। ভবিষ্যতে আরও সম্মৃদ্ধ পর্যটন স্পট হবে। ৫০ ফুট উঁচু এই টাওয়ারের ছাদে সোলার লাইট স্থাপন করা হবে। এতে করে এটি রাতে বাতিঘরের কাজ করবে। পর্যটকদের টপে উঠার ব্যবস্থা থাকবে। বিস্তৃত হ্রদ, পাহাড়, স্বচ্ছ পানিতে গোসল, চাইলে পাহাড় চূড়া ও হ্রদের জলের মিতালীর সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত অবলোকন করা যাবে।

ইউএনও জানান, পর্যায়ক্রমে এখানে ওয়াশরুম, খাবার ও পানীয় জলের সুব্যবস্থাসহ রাত কাটানোর কটেজ, মাছ ধরার ফিসিং জোন, গোসল করার জন্য সুইমিং কর্ণার, সৌন্দর্য্যবর্ধক বিভিন্ন গাছ সম্বলিত উদ্যান ও ফুলের বাগান, ঝুলন্ত সেতু, নৌকা ও কায়াকিং সহ পর্যাপ্ত বিনোদন এর সুব্যবস্থা থাকবে। ভবিষ্যতে লংগদু উপজেলা অত্যন্ত সম্ভাবনাময় একটি পর্যটন এলাকা হিসেবে বিকশিত হবে এবং সেই সাথে লংগদুবাসী অর্থনৈতিকভাবে উপকৃত হবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বিবর্ণ পাহাড়ের রঙিন সাংগ্রাই

নভেল করোনাভাইরাসের আগের বছরগুলোতে এই সময় উৎসবে রঙিন থাকতো পাহাড়ি তিন জেলা। এই দিন পাহাড়ে …

Leave a Reply