নীড় পাতা » করোনাভাইরাস আপডেট » এবার খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় করোনা রোগী শনাক্ত

এবার খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় করোনা রোগী শনাক্ত

পার্বত্য চট্টগ্রামের বান্দরবানে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর এবার খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় নারায়নগঞ্জ ফেরত এক গার্মেন্টসকর্মী করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

শনাক্ত হওয়া এই ব্যক্তি নারায়নগঞ্জ থেকে ফেরার পর থেকেই একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সস্ত্রীক কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। তবে খাগড়াছড়ি জেলাতে তিনি করোনা শনাক্ত হওয়া প্রথম ব্যাক্তি। তিনি ১১দিন আগে নারায়নগঞ্জ থেকে আসলেও এখনো শারীরিকভাবে সম্পূর্ন সুস্থ রয়েছেন। এ কারণে তাকে চিকিৎসার জন্য না পাঠিয়ে লকডাউনে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তনয় তালুকদার।

দীঘিনালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, করোনা শনাক্ত হওয়া এই ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল গত শুক্রবারে, বুধবার রিপোর্ট আসে পজিটিভ।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ৩৫ বছর বয়সী এই ব্যক্তি সস্ত্রীক ১৭ এপ্রিল নারায়নগঞ্জ থেকে বিদায় নিয়ে ১৮ এপ্রিল দীঘিনালায় প্রবেশ করেন। তিনি নারায়নগঞ্জ আদমজী (ইপিজেড) এলাকায় একটি গার্মেন্টসে চাকুরি করতেন। দীঘিনালায় আসার পর একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। সে বিদ্যালয়ে তিনি যে ভবনে রয়েছেন সেখানো আরও ৯ জন রয়েছে কোয়ারেন্টিনে আছেন। একই বিদ্যালয়ের আরেকটি ভবনে রয়েছেন আরও ৪৫ জন।

রিপোর্ট আসার পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ উল্লাহ , উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাজি মোহাম্মদ কাশেম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তনয় তালুকদার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ গিয়ে আক্রান্ত যুবকের সাথে কথা বলে তাদের ভবনটি লকডাউন করে দিয়েছেন। তাদের খাবারের ব্যবস্থা প্রশাসনের পক্ষ থেকে করা হবে।

এর আগে ১৬ এপ্রিল বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার জেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের এক ব্যক্তির করোনা পজিটিভ আসে। এরপর বান্দরবানের থানচি, লামা ও নাইক্ষ্যংছড়িতে পুলিশ সদস্যসহ আরও চারজন আক্রান্ত হয়ে মোট পাঁচজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ইতোমধ্যে নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ইউনিয়নের প্রথম আক্রান্ত ব্যক্তির দ্বিতীয় ও ‍তৃতীয় বারের ল্যাব টেস্টে করোনা নেগেটিভ এসেছে এবং তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

বুধবার খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় করোনা শনাক্ত হওয়া রোগী খাগড়াছড়ির প্রথম করোনা রোগী। এতে করে পার্বত্য চট্টগ্রামের দুই জেলা বান্দরবান ও খাগড়াছড়িতে করোনা সংক্রমিত হলো। তবে এখনো সংক্রমণের বাহিরে রয়েছে পাহাড়ের রাজধানী খ্যাত রাঙামাটি জেলা। অবশ্য রাঙামাটির লংগদুর এক বাসিন্দা পেশায় ট্রাকচালক হবিগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সেখানেই চিকিৎসাধীন আছেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

আলীকদমের ৬৫টি মসজিদে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান প্রদান

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় নভেল করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) সংক্রমণ পরিস্থিতিতে মসজিদের অনুকুলে বরাদ্দকৃত আর্থিক অনুদান প্রদান করা …

Leave a Reply