নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » ‘একটি মৌলবাদী জঙ্গী গোষ্ঠী বাংলাদেশকে তালেবানি রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়’

‘একটি মৌলবাদী জঙ্গী গোষ্ঠী বাংলাদেশকে তালেবানি রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়’

Rabgamati-Pic-06-11-13-02স্বাধীন বাংলাদেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর অত্যাচার মেনে নেয়া যায়না,যেকোন অত্যাচার রুখতে সকল সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন রাঙামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা।

তিনি বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধে সকল সম্প্রদায়ের লোক জীবন দিয়েছে। কিন্তু একটি জঙ্গীবাদ মৌলবাদী গোষ্ঠী সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর দিনের পর দিন অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে। এই অত্যাচার বন্ধ করতে হবে। এই অত্যাচার বন্ধ না হলে আমাদের এই দেশ বিশ্বের কাজে একটি জঙ্গীবাদ ও সাম্প্রদায়িক দেশ হিসাবে পরিচিত হবে।
জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বুধবার রাঙামাটির গর্জনতলী অখন্ড উপসনা মন্দিরে ভ্রাতৃ দ্বিতীয়া অখন্ড মহা সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
আঞ্চলিক সম্মিলিত অখন্ড সংগঠন রাঙামাটি জেলার সভাপতি লোকনাথ দেব বর্মন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান তরুন কান্তি ঘোষ,বিসিক চট্টগ্রামের প্রাক্তন আঞ্চলিক পরিচালক নির্মলেন্দু ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি আঞ্চলিক অখন্ড সংগঠন এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক ডাঃ বিশ্ব কৃর্ত্তি ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি জেলা সম্মিলিত অখন্ড সংগঠন এর সভাপতি স্বপন কুমার মিত্র, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন,জেলা আঞ্চলিক সম্মিলিত অখন্ড সংগঠন রাঙ্গামাটির সাধারণ সম্পাদক প্রণেশ্বর ত্রিপুরা,স্বাগত বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি জেলা অখন্ড উপসনা মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক সুকুমার ত্রিপুরা।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, বর্তমান সরকার দেশের সকল সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অধিকার নিশ্চিত করেছে। সকল সম্প্রদায় যাতে তাদের স্ব স্ব ধর্ম নিরাপদ ও নির্বিঘ্নে পালন করতে পারে তার জন্য সতর্ক ছিলো। কিন্তু একটি মোলবাদী গোষ্ঠী সরকারের এই ভূমিকা দেশে ঈর্ষান্বিত হয়ে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির মাধ্যমে একটি মৌলবাদী জঙ্গী গোষ্ঠী বাংলাদেশকে তালেবানি রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। কিন্তু তাদের এই স্বপ্ন কখনোই সফল হবে না। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার বিগত ৫ বছরে সকল সম্প্রদায়ের ধর্ম পালনে যেমন নিরাপত্তা দিয়ে এসেছে আগামীতেও এই নিরাপত্তা দিয়ে আসবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

ফুটবলের বিকাশে আসছে ডায়নামিক একাডেমি

পার্বত্য এলাকা রাঙামাটিতে ফুটবলকে আরও জনপ্রিয় করে তোলা, তৃনমূল পর্যায় থেকে ক্ষুদে ফুটবল খেলোয়াড় খুঁজে …

Leave a Reply