নীড় পাতা » পাহাড়ের অর্থনীতি » উৎপাদন শংকায় কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্র

উৎপাদন শংকায় কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্র

kaptai-paniবিগত মাসাধিক কাল ধরে কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ২১৮ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। বর্তমানে এই কেন্দ্রের পাঁচটি ইউনিটই সচল থাকলেও পানি স্বল্পতায় ইউনিটগুলি পূর্ণাঙ্গ উৎপাদন ক্ষমতা ব্যবহার করতে পারছে না। এই মওসুমে হ্রদে স্বাভাবিকের চেয়ে পানি কম থাকায় ২৩০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন এই কেন্দ্রে প্রতিদিন কমপক্ষে ১২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কম উৎপাদন হচ্ছে। এদিকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য হ্রদ থেকে প্রতিদিন বিপুল পরিমাণ পানি ছেড়ে দেওয়ার কারণে পানির স্তর ক্রমাগত নিচে নেমে আসছে। এই অবস্থায় বর্ষা আসার আগে বিদ্যুৎ উৎপাদন পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

পক্ষান্তরে নভেম্বর মাস থেকে কাপ্তাই হ্রদের জলে ভাসা জমিতে চাষাবাদের প্রস্তুতি শুরু হয়। চাষের জন্য স্বাভাবিকভাবে এসময় কাপ্তাই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের পানির স্তর কমানো হয়ে থাকে। তবে চলতি বছর স্বাভাবিকের চাইতে কম বৃষ্টিপাত হওয়ায় হ্রদে এমনিতেই পানি কম। এ ক্ষেত্রে জলেভাসা জমির চাষাবাদের সুবিধা বাড়লেও বিদ্যুৎ উপৎপাদন পরিস্থিতি দারুনভাবে ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে বিগত একযুগেরও বেশি সময় কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ প্রকল্পের পাঁচটি ইউনিট কখনও একসাথে চালু ছিল না। যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে সব সময় কোনো না কোনো ইউনিট বিকল থাকতো। আর নীতি নির্ধারণী পর্যায়ের দীর্ঘ সূত্রিতা, জাপানী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের গড়িমসি আর বৈরি আবহাওয়ার কারণে এসব বিকল ইউনিট স্বল্প সময়ে মেরামত করা সম্ভব হয়নি। অর্ধশতাব্দীরও বেশি সময় পার করে আসা মেশিনগুলির একটি সারাতে সারাতে আর একটি বিকল হয়ে যেতো। অবশেষে এবছরের শুরু থেকে পাঁচটি ইউনিটই পুরোপুরি সচল হলেও এবার পানি স্বল্পতায় প্রকল্প তার পূর্ণাঙ্গ ক্ষমতা ব্যবহার করতে পারছে না।

কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে জানানো হয়, সোমবার কাপ্তাই হ্রদে পানির স্তর ছিলো ৯৬.০৭এমএসএল। কিন্তু স্বাভাবিকভাবে এসময় পানি থাকার কথা ১০০ এমএসএমএলের ওপর। অক্টোবরে স্বাভাবিক সময় পনির স্তর ১০৫ থেকে ১০৬ এমএসল থাকার কথা থাকলেও এবছর অক্টোবরে পানির স্তর ছিল ৯৮.০৫ এমএসএল। চলতি বছরে সময়মতো বৃষ্টিপাত না হওয়া ও স্বাভাবিকের তুলনায় কম বৃষ্টিপাত হওয়ায় হ্রদে পানির স্তর এভাবে নিচে নেমে এসেছে বলে কেন্দ্র থেকে জানানো হয়।

কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক ফেরদাউস আলী জানান, এখন দিন দিন কেন্দ্রে বিদ্যুৎ উৎপাদন কমতে থাকবে। পানির স্তর কমতে থাকায় বিদ্যুৎ উৎপাদন কমে আসবে। তবে গত এক সপ্তাহে বিদ্যুৎ উৎপাদনে তেমন কোনো পরিবর্তন হয়নি বলে জানালেন প্রকল্প ব্যবস্থাপক।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কাপ্তাই হ্রদ ব্যবস্থাপনা কমিটির সচিবের অনুপস্থিতে ক্ষেপেছেন ডিসি !

রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে অবস্থিত কর্ণফুলী জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক ও কাপ্তাই হ্রদ ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য সচিব এটিএম …

Leave a Reply