নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » উত্তাল মাটিরাঙ্গায় ক্ষোভের অবরোধ

উত্তাল মাটিরাঙ্গায় ক্ষোভের অবরোধ

khag-01খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় আজিজুল হাকিম শান্ত(২৫) নামে ভাড়ায় চালিত এক মোটর সাইকেল চালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত রবিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মাটিরাঙ্গার রিছাং ঝরনা নামক এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। সে মাটিরাঙ্গার নতুন পাড়া এলাকার ছালে আহম্মদের ছেলে। গত তিনদিন ধরে সে নিখোঁজ ছিল। এই ঘটনায় মোট ২জনকে আটক করেছে পুলিশ। এদিকে এই ঘটনায় ক্ষুদ্ধ হয়ে স্থানীয়রা প্রথমে রিছাং ঝরনা এলাকায় পরে মাটিরাঙ্গা শহরে রাস্তা অবরোধ করে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে। এতে খাগড়াছড়ির সাথে চট্টগ্রাম-ঢাকা সড়কে ৩ ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এদিকে বিক্ষিপ্ত ঘটনার মধ্য দিয়ে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ মাটিরাঙ্গার শান্ত হত্যা ও পানছড়িতে ঠিকাদার সহযোগিসহ দুই জনকে অপহরনের ঘটনায় খাগড়াছড়িতে ঘোষিত সকাল-সন্ধ্যা সড়ক অবরোধ পালিত হয়েছে।

ঘটনার সূত্রপাত যেভাবে :
স্থানীয় ও পুলিশের সাথে কথা বলে জানা গেছে, বৃহষ্পতিবার রাত থেকে আজিজুল হাকিম শান্ত ভাড়ায় মোটর সাইকেল চালাতে গিয়ে নিখোঁজ হন। ঘটনার পরের দিন শুক্রবার শান্তর বাবা ছালে আহম্মদ নিখোঁজের ঘটনায় মাটিরাঙ্গা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এদিকে ভাড়ায় চালিত অন্য মোটরসাইকেল চালকরা তাকে জেলার বিভিন্ন এলাকায় খোঁজাখুজিঁ করেও হদিস পাননি।
এদিকে শনিবার রাতে একই উপজেলার অন্য চালককে যাত্রী সেজে রিছাং ঝরনা এলাকায় নিয়ে যায় ৩ যুবক। যুবকদের সাথে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে চালক পালিয়ে যায়। রবিবার সকালে ৩ যুবকের একজনকে বাজারে দেখলে ঐ চালক স্থানীয়দের সহযোগিতায় আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। তার নাম ধন বিকাশ ত্রিপুরা (২৪)। সে মাটিরাঙ্গার থাপা পাড়া এলাকার বারা চন্দ্র ত্রিপুরার ছেলে।

মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ সাহাদাৎ হোসেন টিটু বলেন, ‘আটককৃত যুবককে মূলত ঐ চালককে তুলে নিয়ে যাওয়ার বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছিল। এ সময় নিখোঁজ শান্তর কথা জিজ্ঞাসা করলে প্রথমে সে অস্বীকার করে। পরে আটক ধন বিকাশ ত্রিপুরাসহ মোট তিনজন মিলে মোটর সাইকেল চালক শান্তকে হত্যা করে রিছাং ঝরনা এলাকায় লাশ ফেলে দেয়া হয়েছে বলে জানালে স্থানীয়দের সহযোগিতায় লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত যুবককে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ, আল্টিমেটাম :
এদিকে মোটর সাইকেল চালক আজিজুল হাকিম শান্তর লাশ পাওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে সহকর্মীসহ স্থানীয়রা ঐ দিন প্রথমে রিছাং ঝরনা এলাকায় পরে মাটিরাঙ্গা শহরে সকাল ১১টা থেকে রাস্তা অবরোধ করে রাখে। এসময় উপজেলা শহরের বিভিন্ন এলাকায় টায়ারে আগুন দিয়ে দোষীদের গ্রেফতার করে শাস্তি দেয়ার দাবিতে শ্লোগান দিতে থাকে। এদিকে রাস্তা অবরোধের কারণে খাগড়াছড়ির সাথে চট্টগ্রাম-ঢাকা সড়কে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এসময় আতংকিত জনগন বিভিন্ন জায়গায় নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যান। অনেকে মাটিরাঙ্গা থানায় আশ্রয় নেন। পরে দুপুর ২টায় প্রশাসনের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেয় বিক্ষুদ্ধ জনতা।

রাতেই লাশ পুড়িয়ে ফেলার কথা ছিল :
শান্ত হত্যার ঘটনায় পুলিশ দুইজনকে আটক করেছে। রবিবার সকালে ধন বিকাশ ত্রিপুরা(২৪)কে আটক করা হয়। সে মাটিরাঙ্গার থাপা পাড়া এলাকার বারা চন্দ্র ত্রিপুরার ছেলে। মূলত তার তথ্যের ভিত্তিতে লাশ উদ্ধার করা হয়। আর রাতেই রিছাং ঝরনা এলাকা থেকে খগেন্দ্র ত্রিপুরা(৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়। এদিকে খগেন্দ্র ত্রিপুরাকে লাশ পুড়িয়ে ফেলার দ্বায়িত্ব দেয়া হয়েছে বলে পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছে।

মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সাহাদাৎ হোসেন বলেন, প্রাথমিকভাবে শান্ত হত্যায় তিনজন জড়িত ছিল বলে জানা গেছে। হত্যাকারীরা খগেন্দ্র ত্রিপুরাকে যেখানে লাশ ফেলা হয়েছে সেদিকে কেউ যাতে না যায় নজড় রাখতে বলেছে। এবং সুবিধাজনক সময়ে লাশ পুড়িয়ে ফেলার নির্দেশনা দেয়। কিন্তু খগেন্দ্র লাশ না পুড়িয়ে ওদিকে কাউকে যেতে দিতোনা। কিন্তু পচন ধরা লাশের গন্ধ বের হওয়ায় রবিবার রাতেই লাশ পুড়িয়ে ফেলার কথা ছিল বলে জানিয়েছে। কিন্তু সকালেই আমরা লাশ উদ্ধার করে ফেলেছি।

এদিকে আটককৃতদের আদালতে তোলা হলে জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট খগেন্দ্র ত্রিপুরাকে ২দিন এবং ধন বিকাশ ত্রিপুরাকে ৩দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলেও জানান তিনি।

জরুরী বৈঠকে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস :
এদিকে তাৎক্ষনিক মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বি এম মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে তার রুমে এক জরুরী বৈঠকের অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে মাটিরাঙ্গা জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল মোঃ জিল্লুর রহমান, মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র মোঃ শামছুল হক, মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সাহাদাৎ হোসেন টিটু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সুভাষ চাকমাসহ গন্যমান্য ব্যক্তি ও মোটরসাইকেল চালক সমিতির নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে মোটর সাইকেল চালক সমিতির নেতৃবৃন্দ নিহতে পরিবারকে ক্ষতিপূরণ, দোষীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টামূলক শাস্তি, ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালকদের সার্বিক নিরাপত্তা দেয়ার দাবী জানান। এসময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে দ্রুত দোষীদের গ্রেফতার করে শাস্থির আওতায় আনার ব্যাপারে আশ্বাস দেন। এসময় দাফনের জন্য মাটিরাঙ্গা জোন এবং মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে পাঁচ হাজার টাকা করে দশ হাজার টাকা দেয়া হয়। এদিকে আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারী মাটিরাঙ্গায় মোটর সাইকেল চালকদের নিয়ে বিশেষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠক থেকে শান্ত হত্যা ঘটনার সর্বশেষ অবস্থা এবং চালকদের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে। মাটিরাঙ্গার চাউল বাজার মুখ মোটর সাইকেল মালিক চালক সমিতির সভাপতি মোঃ ওমর ফারুক বলেন,‘প্রশাসনের আশ্বাসে আমরা অবরোধ তুলে নিয়েছি। আগামী ২৪ তারিখ বৈঠকের সার্বিক বিষয় দেখে আমরা পরবর্তী কর্মসূচী ঘোষনা করবো।

খাগড়াছড়িতে সকাল সন্ধ্যা সড়ক অবরোধ :
এদিকে মাটিরাঙ্গায় শান্তি হত্যা এবং পানছড়িতে ঠিকাদারসহ দুইজনকে অপহরণের প্রতিবাদে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের ডাকে সকাল-সন্ধ্যা সড়ক অবরোধ পালিত হয়েছে। অবরোধের কারণে দূরপাল্লা এবং অভ্যন্তরিণ সড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। সকাল থেকে জেলা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অবস্থান নিয়ে পিকেটিং করেছে অবরোধ সমর্থকারীরা। এসময় তারা বেশ কয়েকটি এলাকায় টায়ারে আগুন দেন। সকাল ১১টায় শহরের শান্তি নগর এলাকায় একটি ইজিবাইক ভাংচুর ও চালককে মারধর করা হয়। এছাড়া এসময় বেশ কয়েকটি ইজিবাইকের চাবি ছিনিয়ে নেয়া হয়। পরে শহরে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি চেঙ্গী স্কোয়ার থেকে শুরু হয়ে ভাঙ্গাব্রজী ঘুরে আবার আবার চেঙ্গী স্কোয়ারে এসে শেষ হয়।

এর আগে গত রবিবার দুপুরে শহরের চেঙ্গী স্কোয়ারে আয়োজিত এক বিক্ষোভ মিছিল শেষে এক প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে এই অবরোধ কর্মসূচী ঘোষনা করা হয়। এতে বক্তব্য রাখেন বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি আব্দুল মজিদ, সহ সভাপতি ইব্রাহিম মনির, কুমিল্লা মহানগর কমিটির সভাপতি কাজী মোঃ হারুনুর রশিদ, সাহাজল ইসলাম সজল প্রমুখ।

মাটিরাঙ্গায় পাহাড়িদের উপর হামলার নিন্দা :
এদিকে ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) এক বিবৃতিতে মোটর সাইকেল চালক শান্ত হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাহাড়ীদের উপর হামলার অভিযোগ করেছেন। রবিবার বিকালে ইউপিডিএফের প্রচার ও প্রকাশনা বিভাগের প্রধান নিরন চাকমা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই অভিযোগ করেন সংগঠনটির জেলা ইউনিটের প্রধান সংগঠক প্রদীপন খীসা। তিনি ববৃতিতে জেলার মাটিরাঙ্গায় পাহাড়িদের উপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন এবং অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

তিনি উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুপুরে মাটিরাঙ্গা বাজারে উছিমং মারমা(১৮)সহ ১০-১২জন আহত হয়েছে বলে জানান। বিবৃতিতে ইউপিডিএফ নেতা আরো বলেন, নিহত আজিজুল হাকিমের মৃত্যু রহস্য অনুসন্ধান না করে অন্যায়ভাবে পাহাড়িদের দায়ি করে তাদের উপর সাম্প্রদায়িক হামলা চালানো কেবল নিন্দনীয়, গর্হিত ও অপরাধমূলক কাজ নয়, তা সভ্য সমাজের সকল মূল্যবোধের বিরোধী। তিনি মোটর সাইকেল চালক আজিজুল হকের মৃত্যুর ঘটনার নিরপেক্ষ ও যথাযথ তদন্ত ও খুন হয়ে থাকলে খুনীদের আইনানুগ শাস্তি এবং একই সাথে মাটিরাঙ্গায় পাহাড়িদের উপর হামলার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের দাবি জানিয়েছেন।

সার্বিক পরিস্থিতি নজড়ে রাখছে প্রশাসন :
এদিকে আজিজুল হাকিম শান্ত’র লাশ উদ্ধারের পর থেকে মাটিরাঙ্গায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নিরাপত্তা জোরদারের কথা বলেছেন প্রশাসন। এদিকে ঘটনার পর থেকে সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম থেকে শুরু করে বিভিন্নভাবে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিএম মশিউর রহমান বলেন, ঘটনাটিকে ইস্যু তৈরি করে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরির চেষ্টা করা হচ্ছে। বিভিন্ন জায়গা থেকে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। তাই সার্বিক পরিস্থিতি নজড়ে রেখেছি। মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সাহাদাৎ হোসেন টিটু বলেন, গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে আমরা আমরা নিরাপত্তা জোরদার করেছি। বর্তমানে সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

শান্ত’র লাশ দাফন, থানায় হত্যা মামলা :

মোটর সাইকেল চালক আজিজুল হাকিম শান্তর লাশ খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে রবিবার বিকালে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। মাটিরাঙ্গার গ্রামের একটি কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে। এদিকে এই ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী ছালে আহম্মেদ বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা হলেন দীপংকর তালুকদার

বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদ রাঙামাটি জেলা শাখার প্রধান উপদেষ্টা হয়েছেন খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী …

Leave a Reply