নীড় পাতা » করোনাভাইরাস আপডেট » ইউএনও বিভীষণের সারথী ওঁরা নয় জন

ইউএনও বিভীষণের সারথী ওঁরা নয় জন

চীনের উহান শহর থেকে শুরু হয়ে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে নভেল করোনাভাইরাস (কভিড-১৯)। বিশ্বব্যাপী মহামারিতে পরিণত করোনাভাইরাস সংক্রমণ দেখা দিয়েছে বাংলাদেশেও। প্রতিদিন নতুন নতুন রোগী শনাক্ত হচ্ছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সারাদেশে চলছে অঘোষিত লকডাউন। লকডাউনের মধ্যে দিয়ে প্রশাসনের চোখকে ফাঁকি দিয়ে করোনার ‘হটস্পট’ নারায়নগঞ্জ বা ঢাকা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে মাটিরাঙ্গায় ফিরছে অনেকেই। আর এ ভাইরাস মোকাবিলায় ‘হোম কোয়ারেন্টিন’ একটি কার্যকর উপায় হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। এ ব্যবস্থা কার্যকর করতে মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন শুরু থেকেই কাজ করছে।

মাটিরাঙ্গায় হোম কোয়ারেন্টেন নিশ্চিত করতে যখন স্থানীয় প্রশাসন যখন হিমশিম খাচ্ছে তখন এপ্রিল মাসের শেষ দিকে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বিভীষণ কান্তি দাশ স্থানীয় উদ্যোমী যুবকদের নিয়ে করোনা প্রতিরোধে গড়ে তুলেন ‘কুইক রেসপন্স টিম’ নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী গ্রুপ।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ‘র নির্দেশনায় গত ১৫দিনের বেশী সময় ধরে মাটিরাঙ্গায় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতসহ হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে রাত-বিরাতে মাটিরাঙ্গা থেকে তানাক্কাপাড়া পর্যন্ত ছুটে চলছে ‘ওঁরা নয় জন’। শুধু হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিতই নয়, কোয়ারেন্টিনে রাখা পরিবারদের কাছে মাটিরাঙ্গা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় ১৪ দিনের খাবার পৌঁছে দিতেও কাজ করছে তারা।

ইতোমধ্যে মাটিরাঙ্গা পৌর সদর, যামিনীপাড়া ও আমতলীসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে শতাধিক পরিবারের হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করা হয়েছে। এছাড়া কোয়ারেন্টিনে থাকাতের বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেয়াসহ কোয়ারেন্টিনে থাকা পরিবারের সদস্যদের নিয়মিত খোঁজখবর রাখছে ‘কুইক রেসপন্স টিম’ নয়যুবক।

‘কুইক রেসপন্স টিম’র প্রধান সমন্বয়কারী মো. দেলোয়ার হোসেন রিপন বলেন, আমরা দেখেছি করোনাভাইরাস প্রতিরোধে শুরু থেকেই মাটিরাঙ্গার মানুষকে নিরাপদ রাখতে অবিারম কাজ করে গেছেন মাটিরাঙ্গা ইউএনও। একপর্যায়ে আমাদের মনে হল মাটিরাঙ্গার মানুষকে নিরাপদ রাখতে আমাদেরও দায়িত্ব আছে। তখনই আমরা নিজেরাই জনগনকে সচেতন করতে নিজেদের উদ্যোগে স্বল্প পরিসরে কাজ শুরু করি। আমরা মাটিরাঙ্গার বিভিন্ন স্থানে জীবাণুনাশক স্প্রে করি। এক পর্যায়ে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ‘কুইক রেসপন্স টিম’ গঠনের মাধ্যমে আমাদেরকে আরও বড় পরিসরে কাজ করার সুযোগ করে দেন।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ বলেন, কাজ দেখেই মনে হয়েছিল তাদেরকে কাজে লাগানো যেতে পারে। মধ্যবিত্তদের বাড়িতে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেয়ার চিন্তা থেকেই তাদেরকে দিয়ে গঠন করি ‘কুইক রেসপন্স টিম’। বর্তমানে তারা মাটিরাঙ্গায় হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে বড় ধরনের ভূমিকা রাখছে। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করাসহ করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে কাজ করছে যুবকেরা। মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসনের পাশে থেকে মাটিরাঙ্গার মানুষকে নিরাপদ রাখতে নিরলসভাবে কাজ করছে তারা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কাপ্তাইয়ে সন্ত্রাসী হামলায় দুজন নিহত

রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলায় প্রতিপক্ষের সশস্ত্র হামলায় সুভাষ তনচংগ্যা (৪৫) ও ধরনজয় তনচংগ্যা (৩৬) নামে দুইজন …

Leave a Reply