নীড় পাতা » ফিচার » খোলা জানালা » আমার ভাই সাংবাদিক জামাল

আমার ভাই সাংবাদিক জামাল

Jamal-pic,1২২ ফেব্রুয়ারী দিনটি ছিলো আমার ভাই ও রাঙামাটির তরুন প্রতিশ্রুতিশীল সাংবাদিক মরহুম সাংবাদিক মোঃ জামাল উদ্দিন এর ৩১ তম জন্ম বাষিকী। তরুণ এ সাংবাদিক বেঁচে থাকলে আজ ৩২ বছরে পা দিতেন। বরাবরের মতোই আনন্দ আর হৈ হুল্লরে উদযাপিত হতো তার ৩১তম জন্মবার্ষিকী। কিন্তু জামাল শূন্য তার জন্মদিন আমাদের পরিবাওে সৃষ্টি করে নিদারুন হাহাকার,জন্ম দেয় বুকভরা কান্নার। অশ্রুজলে ভেসে যায় সমস্ত বাকশক্তি। বারবার অন্তরে জ্বলে উঠে বেদনার আগুন। তবুও তার আত্মার শান্তির জন্য চোখের জল মুছে মুছে মহান আলাহতালার নিকট প্রার্থনা আদায়ে নিরবতার আশ্রয় নিতে হয় আমাদের।

পাবত্য চট্টগ্রামের মতো একটি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় অতি অল্প বয়স থেকে সাংবাদিকতা পেশায় সফল হতে সক্ষম হন সাংবাদিক জামাল উদ্দিন। তার এ সফলতা দেখে ঈর্ষান্বিত হয়ে ঘাতকরা অকালে তার জীবন কেড়ে নিয়েছে বলে আমাদের বিশ্বাস। ২০০৭ সালে ২৪তম জন্মবার্ষিকী উদযাপনের ঠিক ১১ দিন পর জামালের জীবন কেড়ে নেয় ঘাতক সন্ত্রাসীরা।

তরুন সাংবাদিক জামাল মৃত্যুর আগ মুহুর্ত পর্যন্ত প্রায় ১০ বছর পেশাগত কাজে দক্ষতার ছাপ রেখেছিলেন। পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে কারো রক্ত চক্ষু তাকে থামিয়ে দিতে পারেনি। আর তাই অকালে চিরবিদায় নিতে হয়েছে তাকে। একজন পেশাদার সাংবাদিক হিসেবে তিনি যেমন সফল হয়েছেন তেমনি একজন ভালো আলোকচিত্র সাংবাদিক হিসেবেও পরিচিতি ছিল শহরে। রাঙামাটির মানুষের মাঝে অতি পরিচিত মুখ ছিলেন সাংবাদিক জামাল উদ্দিন নামে। পেশাগত জীবনে জামাল উদ্দিন পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রচার বহুল দৈনিক গিরিদর্পন পত্রিকায় প্রতিবেদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়া দীর্ঘদিন ধরে তিনি বার্তা সংস্থা আবাস, দৈনিক বর্তমান বাংলা, দৈনিক করতোয়ায়সহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে কাজ করেছিলেন।
জামালউদ্দিন ১৯৮৩ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি রাঙামাটি শহরের কাঠালতলী এলাকায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। জন্মের ৫ বছর পর পিতা আব্দুল আলম (ওয়াশিংটন) মারা যান । পিতার মৃত্যুর পর জামাল উদ্দিন অতি কষ্টে লেখা পড়া শেষ করে সাংবাদিকতা জীবনে সফল হতে পেরেছিলেন। তিনি বাকি জীবনেও মানুষের স্নেহে আর ভালোবাসায় বেঁচে থাকতে চেয়েছিলেন- কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস- এই সুন্দর পৃথিবীতে বাচঁতে দিল না কতগুলো নিষ্ঠুর সন্ত্রাসী।
প্রসঙ্গত, ২০০৭ সালের ৬ মার্চ সাংবাদিক জামাল উদ্দিন রহস্য জনকভাবে খুন হন। ৫মার্চ নিখোঁজ হওয়ার একদিন পর রাঙামাটি পর্যটন এলাকার হেডম্যান পাহাড়ে পুলিশ তার মৃত দেহ উদ্ধার করে। ময়না তদন্তের পর ৭ মার্চ তাকে কবরে সমাহিত করা হয়। ভাইয়ার জন্মদিনে তার আত্মার মাগফেরাত কামনার পাশাপাশি জানাই জন্মদিনের শ্রদ্ধাঞ্জলি,সেই সাথে তার হত্যার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

লেখক : ফাতেমা জান্নাত মুমু, বাংলাদেশ প্রতিদিন,দৈনিক সাঙ্গু ও মোহনা টেলিভিশন এর রাঙামাটি প্রতিনিধি, নিহত সাংবাদিক জামালউদ্দিনের ছোট বোন।

( খোলা জানালা বিভাগে প্রকাশিত সকল লেখার দায় সংশ্লিষ্ট লেখকের, এর সাথে আমাদের পাহাড়টোয়েন্টিফোর ডট কম এর সম্পাদকীয় নীতিমালার কোন সম্পর্ক নেই…..সম্পাদক)

Micro Web Technology

আরো দেখুন

করোনার গ্যাড়াকলে মধ্যবিত্ত

জনপ্রিয় কথা সাহিত্যিক হুমায়ুম আহমেদ বলেছেন- ‘‘মধ্যবিত্ত হয়ে জন্মানোর চেয়ে ফকির হয়ে জন্মানো ভাল। মধ্যবিত্তরা …

One comment

  1. এখনো মনে পড়ে জামাল ভাই মারা যাওয়ার আগের দিনের শেষ কথা । ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: