নীড় পাতা » ব্রেকিং » ‘আবার হামলা হলে সারাদেশেই পাল্টা জবাব’

‘আবার হামলা হলে সারাদেশেই পাল্টা জবাব’

DSC00145‘আবার যদি পাহাড়ে ছাত্রলীগের একজন নেতাকর্মীর উপরও হামলা হয়,তবে সারাদেশে বিভিন্ন কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া পিসিপি কর্মীদেরও গনপিটুনি এবং উচিত শিক্ষা দেয়া হবে বলে পাহাড়ী ছাত্র পরিষদকে সতর্ক করে দিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতারা।

শনিবার রাঙামাটি কলেজে ছাত্রলীগ নেতা অর্ণব ত্রিপুরা সৌরভসহ ছাত্রলীগ ও সাধারন শিক্ষার্থীদের মারধর,কলেজগেইটে ব্যবসায়িদের দোকানপাট ভাংচুর লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে রবিবার সকালে রাঙামাটি শহরে অনুষ্ঠিত এক বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে এসব কথা বলেছেন ছাত্রলীগ নেতারা।

সকালে পৌর চত্বর থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহর প্রদক্ষিন করে শহরের হ্যাপীর মোড় এলাকায় সমাবেশ করে। জেলা ও কলেজ ছাত্রলীগ যৌথভাবে এই কর্মসূচীর আয়োজন করে।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা যুবলীগের সভাপতি আকবর হোসেন চৌধুরী,জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল জব্বার সজুন,সহসভাপতি সাইফুল আলম রাশেদ,সাধারন সম্পাদক প্রকাশ চাকমা,কলেজ সভাপতি সুলতান মাহমুদ বাপ্পা প্রমূখ।

বক্তারা পাহাড়ী ছাত্র পরিষদেক পার্বত্য চট্টগ্রামের সকল সাম্প্রদায়িক সংঘাত ও উস্কানির ‘মাস্টারমাউন্ড’ হিসেবে অভিহিত করে বলেন, ১৯৯২ সালে রাঙামাটি কলেজ থেকে সৃষ্ট সাম্প্রদায়িক সংঘাত থেকে শুরু করে ২০১২ সালে আবার রাঙামাটি কলেজ থেকে সৃষ্ট সংঘাত শহরে ছড়িয়ে দেয়া,সর্বশেষ রাঙামাটি মেডিকেল কলেজ উদ্বোধনের দিন অযাচিতভাবে সাম্প্রদায়িক সংঘাত সৃষ্টির জন্য দায়ি এই সংগঠনটি।’
ছাত্রলীগ নেতারা হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেন, অনেক সহ্য করেছি,আর না। আরেকবার ছাত্রলীগের উপর হামলা করলে বুঝবেন অর্ধশতাব্দীর ঐতিহ্যবাহি এই সংগঠনটি কি করতে পারে।’

তারা ভবিষ্যতে পার্বত্য চট্টগ্রামের কোথাও একজন ছাত্রলীগ কর্মীর উপরও যদি পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ হামলা চালায়,তবে দাঁতভাঙ্গা জবাব দেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার প্রতিবাদ রাঙামাটিতে

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার নামে ‘উগ্রমৌলবাদ ও ধর্মান্ধগোষ্ঠীর জনমনে বিভ্রান্তির …

৬ comments

  1. পাহার টুয়েন্টি ফোর না চুনুবাহিনী টুয়েন্টি ফোর ?

  2. ঐতিহ্যবাহী ছাত্রলীগের এই ধরনের পাল্টা জবাব হুশিয়ারী বক্তব্য তাদের ঐতিহ্যকে নষ্ট করে দেয় । এই ধরনের বক্তব্যতে আগাম সাম্প্রদায়িক – সংঘাতের পথের ইঙ্গিত দেয় ,যা সরকারের অসম্প্রদায়িক উচ্চারণকে ক্ষুন্ন করে ।এক টা কথা জেনে রাখা ভাল,পাহাড়ীদের হারাবার কিছু নেই ।

  3. কি জবাব ? সোজা কথা চেহারাও খুজে পাওয়া যাবে না

  4. গনতানত্রিক অধিকার সবার আসে, সেই অধিকার যখন খর্ব হয় তখন কামর দিতে হয়। তাই বাড়াবরি করবেন না ছাত্রলীগ, হুমকি দিয়ে, হামলা করে, সাড়া পাবেন না।তার জবাব দেওয়া হবে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: