নীড় পাতা » পাহাড়ের রাজনীতি » আওয়ামীলীগের ৫,বিএনপির ৭, জনসংহতির ১ !

আওয়ামীলীগের ৫,বিএনপির ৭, জনসংহতির ১ !

rangamatiiiiiঘোষিত হয়েছে পৌর নির্বাচনের তফশিল,দলগুলোও এখনো নিশ্চিত করেনি প্রার্থীতা। তবুও বিরাম নেই রাঙামাটি পৌরসভার সম্ভাব্য প্রার্থীদের। এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্ত প্রানান্ত ছুটে চলেছেন সব প্রার্থীরাই। আর এবারের নির্বাচন যেহেতু দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত হচ্ছে,ফলে নির্বাচনী আমেজও পেয়েছে ভিন্নমাত্রা। তবে প্রধান দুইদল আওয়ামীলীগ ও বিএনপি’র পরস্পরের দিকেই তাকিয়ে আছেন কে কাকে প্রার্থী ঘোষণা করছে,সেটা দেখার পর নিজেদের সিদ্ধান্ত জানাতে।

তবে এখন পর্যন্ত বিএনপির সাতজন নেতা প্রার্থী হওয়ার ব্যাপারে নিজেদের আগ্রহের কথা জানিয়েছেন। বর্তমান মেয়র সাইফুল ইসলাম চৌধুরী ভূট্টো নির্বাচন করবেন না জানিয়ে দেয়ার পর পৌর বিএনপির সভাপতি শফিউল আজম,সাধারন সম্পাদক মাহবুবুল বাসেত অপু,সদর থানা বিএনপির সভাপতি এডভোকেট মামুনুর রশীদ,জেলা মহিলা দলের সভাপতি মিনারা আরশাদ,জেলা যুবদলের সভাপতি সাইফুল ইসলাম শাকিল ও সাধারন সম্পাদক মো: ইলিয়াছ,ছাত্রদলের সভাপতি আবু সাদাত মো: সায়েম এবং বিএনপি নেতা ও বর্তমান কাউন্সিলর রবিউল আলম রবি নিজেদের প্রার্থীতার কথা ইতোমধ্যেই দলকে জানিয়েছেন। তবে বিএনপি এখনো কোন সিদ্ধান্ত নেয়নি। দলটি তাকিয়ে আছে,তফসিল ঘোষনা ও আওয়ামীলীগ কাকে প্রার্থী করছে সেইদিকেই।

জেলা বিএনপির সভাপতি মোঃ শাহ আলম জানালেন,আমাদের প্রার্থী মনোনয়নে তেমন একটা সমস্যা হবেনা,বর্তমান মেয়র আমাদের,আবার আরো সাতজন মনোনয়ন চাচ্ছেন। এই ব্যাপারে আমরা একটি কমিটি করেই সর্বজনগ্রাহ্য সিদ্ধান্ত নিবো।

অন্যদিকে আওয়ামীলীগ এবার পৌরমেয়রের পদটি ফিরে পেতে মরিয়া প্রচেষ্টা চালাবে। ইতোমধ্যেই পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি সোলাইমান চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল মতিন,জেলা যুবলীগের সভাপতি আকবর হোসেন চৌধুরী,সাবেক মেয়র ও আওয়ামীলীগ নেতা হাবিবুর রহমান এবং সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শহীদুজ্জামান মহসিন রোমান প্রার্থী হিসেবে নিজের নাম ঘোষণা করেছেন এবং দলীয় মনোনয়ন পেতে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন। কিন্তু আওয়ামীলীগ কিংবা দলটির প্রধার কান্ডারি ‘দাদা দীপংকর’ কাউকেই গ্রীন সিগন্যাল দেননি। তফসিল ঘোষণা করা হলে এবং বিএনপির কাকে প্রার্থী করছে তা দেখেই নিজেদের প্রার্থী ঘোষণা করতে চায় দলটি।
জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ মুছা মাতব্বর বলেন, এবার রাঙামাটি পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে আমরা অনেক সিরিয়াস এবং আমরা এমন একজনকেই প্রার্থী করবো যে বিজয়ী হতে পারবে। আমরা এবার দলীয় প্রার্থীর বিষয়ে ঐক্যবদ্ধ সিদ্ধান্তই নিবো।

প্রধান এই দুই দলের বাইরে পাহাড়ে অন্যতম বৃহৎ শক্তি আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল জনসংহতি সমিতি। সংগঠনটি নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত না হওয়ায় নিজস্ব প্রতীকে নির্বাচন করতে না পারলেও ইতোমধ্যেই স্বতন্ত্র পরিচয়েই জাতীয় সংসদ সদস্য হয়েছে দলটির প্রার্থী। সর্বশেষ উপজেলা নির্বাচনেও রাঙামাটি সদর উপজেলাসহ বেশিরভাগ উপজেলার দখলও তাদের হাতে। আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনেও তারা নিজস্ব ‘স্বতন্ত্র’ প্রার্থী দিবেন এটা নিশ্চিত বলা যায়। তবে বরাবরই ভীষণ কৌশলী আর যোগবিয়োগের হিসেবে দক্ষ দলটি এখনো কাউকেই প্রার্থী হিসেবে সামনে আনেনি। যদিও লোকমুখে রটেছে বর্তমান কাউন্সিলর কালায়ন চাকমা,ডা: গঙ্গামানিক চাকমা কিংবা জেলা জনসংহতির সভাপতি সূবর্ণ চাকমা প্রার্থী হতে পারেন। কিন্তু দলটির পক্ষ থেকে চূড়ান্ত ঘোষণার আগঅবধি এই বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া কঠিন। কারণ সাবেক গেরিলা এই সংগঠনটি রাজনৈতিক কৌশলের মতো প্রার্থী নিয়েও বিশেষ কৌশলেই এগোবে এবং শেষাবধি পাহাড়ী জনগোষ্ঠী থেকে একজনই প্রার্থী হবে,এটা নিশ্চিত বলা যায়। শুধু তাই নয়,তাদের ঘোষণার পূর্বমুহুর্ত পর্যন্ত জানাই যাবেনা,কে প্রার্থী হচ্ছেন।

২০১১ সালে অনুষ্ঠিত সেই নির্বাচনে রাঙামাটিতে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী সাইফুল ইসলাম চৌধুরী ভূট্টো ১০,৮৮৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছিলেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি ছিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রতীম রায় পাম্পু,যিনি পেয়েছিলেন ৮,৯১৫ ভোট। আওয়ামীলীগের সমর্থিত প্রার্থী আব্দুল মতিন পেয়েছিলেন ৮,১৬৩ ভোট,তিনি তৃতীয় হয়েছিলেন। অন্যদিকে চতুর্থ মেয়র প্রার্থী ছিলেন মোঃ মনিরুজ্জামান মহসীন,তিনি পেয়েছিলেন ৬,০৬৩ ভোট।

রাঙামাটি পৌরসভার আয়তন ৬৪.৭২ বর্গকিলোমিটার। তিনদিকেই হ্রদ আর পাহাড়বেষ্টিত এই পৌরসভায় এবার ভোটার ৫৮ হাজার ৩৯৭ জন, এরা ২৮ টি কেন্দ্রের ১৯৩ টি বুথে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। আবার এই পৌর এলাকায় ভোটারদের আগ্রহের কিছু নির্দিষ্ট বিষয় আছে। প্রার্থীর জাতিগত পরিচয় কি,কি পাহাড়ী নাকি বাঙালী,চাঁটগাইয়া নাকি বইঙ্গ্যা (অন্য জেলার), চন্দনাইশ নাকি রাঙ্গুনিয়া, এমন বিচিত্র সব সামনে এসে হাজির হয় এখানকার পৌর নির্বাচনে। সঙ্গত কারণেই এই নিয়ামক যে প্রার্থীর পক্ষে যাবে,ভোটের বাজির ধরে বা রেসে তিনিই শেষাবধি ছক্কাটা হাঁকেন,ইতিহাস অন্তত: তাই’ই বলে। দেখা যাক,এবার ইতিহাসের ছক ঘুরে কিনা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রাঙামাটিতে এক দিনেই ১১ জনের করোনা শনাক্ত

শীতের আবহে হঠাৎ করেই পার্বত্য চট্টগ্রামের রাঙামাটি জেলায় করোনা সংক্রমণে উল্লম্ফন দেখা দিয়েছে। বিগত কয়েকদিনের …

Leave a Reply

%d bloggers like this: