নীড় পাতা » ব্রেকিং » অসুস্থ জুমচাষি যতীন ত্রিপুরাকে হেলিকপ্টারে নেয়া হল চট্টগ্রামে

উন্নত চিকিৎসার জন্য

অসুস্থ জুমচাষি যতীন ত্রিপুরাকে হেলিকপ্টারে নেয়া হল চট্টগ্রামে

রাঙামাটি বাঘাইছড়ির উপজেলার দুর্গম সাজেক ইউনিয়নের এক জুম চাষিকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উন্নত চিকিৎসা জন্য হেলিকপ্টারযোগে চট্টগ্রামে নেয়া হয়েছে। আহত জুম চাষি যতীন ত্রিপুরা (৩৩) সাজেকের জপুই পাড়া এলাকার বাসিন্দা। রোববার বিকেল সাড়ে চারটায় সাজেক থেকে সেনাবাহিনী ও বিজিবির সহায়তায় বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টারযোগে তাকে চট্টগ্রামে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় ও সংশ্লিষ্টরা জানান, যতীন ত্রিপুরা গত বুধবার (২৯ এপ্রিল) সাজেক ইউনিয়নের জপুই পাড়া এলাকায় জুম চাষের সময় উঁচু পাহাড় থেকে দুর্ঘটনাবশত পড়ে গিয়ে পাহাড়ের পাদদেশে থাকা বাঁশের আঘাতে মারাত্মকভাবে জখম হন। জপুই পাড়া এলাকাটি অত্যন্ত দুর্গম হওয়ায় সেখানে চিকিৎসাসুবিধা খুবই অপ্রতুল। এই অবস্থায় আহত যতীন ত্রিপুরাকে নিকটতম জপুই বিওপিতে আনা হলে বিজিবি ক্যাম্পের পক্ষ থেকে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে আঘাতের মাত্রা বিবেচনা করে জীবন রক্ষার্থে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামে নেয়া প্রয়োজন মর্মে বিজিবি খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়ন সেনাবাহিনীকে বিষয়টি অবহিত করে।

সূত্রে জানা গেছে, পরে খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়ন বিষয়টি তাৎক্ষনিকভাবে ২৪ পদাতিক ডিভিশনকে (চট্টগ্রাম সেনানিবাস) অবহিত করে হেলিকপ্টারের মাধ্যমে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামে আনার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানায়। পরে সেনাবাহিনীর তত্বাবধানে বাংলাদেশ বিমানবাহিনী জহুর ঘাঁটি’র একটি বিশেষ হেলিকপ্টারে করে যতীন ত্রিপুরাকে প্রথমে চট্টগ্রাম সেনানিবাসে নিয়ে আসা হয় এবং পরবর্তীতে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে (চমেক) নিয়ে যাওয়া হয়।

এদিকে আহত হয়ে একজন অসুস্থ জুমিয়ার পাশে দাঁড়ানোর ঘটনা মুগ্ধ করেছে স্থানীয়দেরও। এ ব্যাপারে সাজেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নেলসন চাকমা জানিয়েছেন, আমরা চাই এভাবেই আমাদের বিপদে-আপদে আমাদের পাশে থাকুক বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও বিজিবি। একজন সাধারণ জুমিয়া চাষির চিকিৎসার জন্য তারা আজকে যে কাজটি করলো আমরা সাজেকবাসী তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা জানাই।

এর আগে গত ২৫ মার্চ সাজেকের দুর্গম অরুণ পাড়া থেকে এক পরিবারের হাম আক্রান্ত গুরুতর অসুস্থ পাঁচ ভাইকে বিজিবি ও সেনাবাহিনী তত্ত্বাবধানে হেলিকপ্টারে করে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে (চমেক) নেয়া হয়। পরবর্তীতে তারা পাঁচ ভাই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার প্রতিবাদ রাঙামাটিতে

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার নামে ‘উগ্রমৌলবাদ ও ধর্মান্ধগোষ্ঠীর জনমনে বিভ্রান্তির …

Leave a Reply