নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » অবরোধের মাঠে সক্রিয় মনীষ দেওয়ান

অবরোধের মাঠে সক্রিয় মনীষ দেওয়ান

1132সারাদেশের উম্মাতাল রাজনীতির মাঝেও যেনো অনেকটা সুস্থধারার সম্প্রীতির রাজনীতির চর্চাই অব্যাহত আছে পাহাড়কন্যা পার্বত্য শহর রাঙামাটিতে। কোন প্রকার উত্তাপ বা সহিংসতা ছাড়াই এখানে পালিত হচ্ছে বিরোধীদলীয় জোটের টানা অবরোধ। জেলা শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নিয়ে দলের সিনিয়র নেতারা পিকেটিংয়ে নেতৃত্ব দিচ্ছেন।
তবে অবরোধেও শহরে মোটরসাইকেল ছাড়া আর কোন যান চলতে না দেয়া নিয়ে হতাশ শহরবাসি,তাদের অনেকের অভিযোগ,বিরোধীজোট হরতাল আর অবরোধের পার্থক্যই ভুলে গেছে। তাদের দাবি,অবরোধে দুরপাল্লার যান চলাচল বন্ধ থাকার নিয়ম থাকলেও আভ্যন্তরিন যান চলাচল বন্ধ রেখে বিরোধীদলীয় জোটের নেতাকর্মীরা সাধারন মানুষকে হয়রানি করছেন। ক্ষুদ্ধ শহরবাসির বক্তব্য,বিরোধী জোট হরতাল আর অবরোধের পার্থক্যই ভুলে গেছে।

তবে জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মোঃ শাহ আলম জানিয়েছেন,যেহেতু রাঙামাটি একমুখী সড়ক তাই এখানে শহরের মূল সড়কটিও রাজপথ হিসেবে বিবেচিত,তাই কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুসারেই আমরা রাজপথ অবরোধ করেছি। কিন্তু একই সাথে শহরবাসির সুবিধার বিষয়টি বিবেচনা করে বিকেলে পিকেটিং রাখছিনা,এবং শহরের ভেতরে মোটরাসাইকেল চলতে দিচ্ছি। এটাও আমাদের উদারতার কারণে হচ্ছে।

এদিকে রবিবারও অবরোধের সমর্থনে শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পিকেটিং করেছে বিএনপি ও সহযোগি সংগঠনের সিনিয়র নেতারা।
মানিকছড়িতে জেলা ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম তালুকদারের নেতৃত্বে পিকেটিং হয়েছে। কলেজগেইটে জেলা বিএনপির সভাপতি দীপেন দেওয়ানের নেতৃত্বে,বনরূপায় জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম পনির,পৌর বিএনপির সাধারন সম্পাদক শফিউল আজমসহ ছাত্রদল,যুবদল ও বিএনপির বিভিন্ন সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা পিকেটিং করেন। পৌর এলাকায় জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মোঃ শাহ আলম ,যুগ্ম সম্পাদক আলী বাবর,আব্দুল কুদ্দুছ,মহিলা দলের মিনারা আরশাদ,শাহেদ আলমকে পিকেটিং করতে দেখা গেছে।
শহরের বিএনপি’র ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত তবলছড়িতে পৌর মেয়র সাইফুল ইসলাম ভূট্টো,বিএনপি নেতা লেঃকর্ণেল (অব.) মনীষ দেওয়ান,জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মামুনুর রশীদ,দীপন তালুকদার,যুবদল সভাপতি সাইফুল ইসলাম শাকিল,ছাত্রদল সভাপতি আবু সাদাত মোঃ সায়েমসহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা পিকেটিং-এ নেতৃত্ব দেন। 1124

এদিকে সাম্প্রতিক অবরোধ ও দলীয় কর্মসূচীতে নিয়মিত অংশগ্রহন দেখা যাচ্ছে জেলা বিএনপির নেতা লেঃকর্ণেল(অব.) মনীষ দেওয়ানকে। শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পায়ে হেঁটে হেঁটে নেতাকর্মীদের সাথে পিকেটিং এবং মিছিলে অংশ নিতে দেখা গেছে এই সাবেক সেনা কর্মকর্তাকে। মনীষ দেওয়ানের নিয়মিত উপস্থিতির কারণে চাঙ্গা তার অনুসারি নেতাকর্মীরা। রবিবার সকালে তবলছড়িতে পিকেটিং ও মিছিল করে আবার বনরূপায় নেতাকর্মীদের সাথে পিকেটিং করেছেন তিনি। মনীষ দেওয়ান দলে যতবেশি সক্রিয় হচ্ছেন,ততবেশি অস্বস্তিতে ভুগছেন দীপেন দেওয়ান অনুসারিরা। বিভিন্নস্থানে মনীষ দেওয়ানের উপস্থিতির কারণে বিব্রত অবস্থায় পড়ে স্থানত্যাগ করছেন এদের অনেকে, আবার কেউ কেউ কূশল বিনিময় করে পাশে বসছেন।

মনীষ দেওয়ান বলেন,আমি নেতাকর্মীদের সান্নিধ্য ভীষন এনজয় করি। তাদের সাথে পিকেটিং,মিছিল,মিটিং আমাকে অনুপ্রাণিত করে। নেতাকর্মীদের আবেগ আর উচ্ছাস দেখে তার মন্তব্য,নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন ছাড়া আর কোনভাবেই কোন অবৈধ নির্বাচন দেখতে চাইনা আমরা। দেশনেত্রী বেগম জিয়ার নির্দেশে দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত নেতাকর্মীরা মাঠ ছাড়বেনা বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মনীষ দেওয়ান অনুসারি হিসেবে পরিচিত রাঙামাটির পৌর মেয়র সাইফুল ইসলাম ভূট্টো বলেন,মনীষ দেওয়ানের উপস্থিতিতে নেতাকর্মীরা চাঙ্গা থাকে,নেতাকর্মীদের প্রতি তার আন্তরিকতা ও ভালোবাসা তাদের মুগ্ধ করে। ভবিষ্যতে এজেলায় বিএনপিকে নেতৃত্ব দেয়ার জন্য মনীষ দেওয়ানই সবচে যোগ্য নেতা বলেও মন্তব্য করেন তিনি। চলমান সরকার বিরোধী আন্দোলনে নেতাকর্মীদের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণই প্রমাণ করে এই সরকারের অধীনে কোন একদলীয় নির্বাচন চায়না দেশের মানুষ,এমন মন্তব্যও করেন তিনি।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

লংগদুতে ১০ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন

খাদ্য মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও রাঙামাটির সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার  রাঙামাটির লংগদু …

One comment

  1. I am happy to see Col.Manish Dewan (Rtd) actively participating in the BNP plitics.He is right person to lead the Tribal people for the development of the nation.

Leave a Reply

%d bloggers like this: