নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » অপহরণের চারদিন পর জেএসএস কর্মীর লাশ উদ্ধার,আটক ৩

অপহরণের চারদিন পর জেএসএস কর্মীর লাশ উদ্ধার,আটক ৩

rowangchhariঅপহরণের চারদিন পর বান্দরবানে অপহৃত জনসংহতি সমিতির কর্মী রেদাশে মারমা’র লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে যৌথ বাহিনী ৩ ব্যক্তিকে আটক করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে রোয়াংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুচ সাত্তার ও সেনাবাহিনীর ৬৯ সেনা রিজিয়নের জিএসটু মেজর মাহাবুব মোর্শেদ। শনিবার দুপুরে জেলার রোয়াংছড়ি উপজেলার তারাছা ইউনিয়নের হেডম্যান পাড়া থেকে অপহৃতের লাশ উদ্ধার ও জড়িত সন্দেহভাজনদের আটক করা হয়।
সেনাবাহিনীর ৬৯ সেনা রিজিয়নের জিএসটু মাহাবুব মোর্শেদ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দূর্গম হেডম্যান পাড়া এলাকায় পাহাড় থেকে অপহৃত জনসংহতি সমিতির কর্মী রেদাশে মারমার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে হেডম্যান পাড়া পাহাড়সহ পাশ্ববর্তী এলাকা থেকে ৩ জন ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলেন-পুলমং মারমা, ক্যহ্লা প্রু মারমা ও ক্যচিং প্রু মারমা।
রোয়াংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুস সাত্তার জানান, রোয়াংছড়ি উপজেলার বেতছড়া থেকে গত ২১ জানুয়ারী গভীররাতে জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)’র কর্মী রেদাশে মারমা’কে অস্ত্রধারী কয়েকজন ব্যক্তি বাসা থেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহরণের চারদিন পর শনিবার হেডম্যান পাড়া থেকে অপহৃত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত লাশটি ময়না তদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
জেলা জনসংহতি সমিতি সাধারণ সম্পাদক ক্যবা মং মারমা জানান, নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার অংশ হিসেবে জেএসএস কর্মীকে অপহরণের পর হত্যা করা হয়েছে। আমরা এই ঘটনার সুষ্ঠ বিচারের দাবী জানাচ্ছি।
প্রসঙ্গত, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন’কে কেন্দ্র করে গত ২১ জানুয়ারী রাতে রেদাশে মারমাকে অপহরণ করে নিয়ে যায় দুর্বত্তরা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রাঙামাটিতে করোনায় আরও এক নারীর মৃত্যু

রাঙামাটি শহরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার ভোররাতে শহরের চম্পকনগর আইসোলেশন …

Leave a Reply